বান্দরবানে বৌদ্ধ ধর্মকে অবমাননার প্রতিবাদে মানববন্ধন

 বান্দরবান প্রতিনিধি : বৌদ্ধ ধমের্র প্রতি ‘অবমাননাকর’ সংবাদ পরিবেশনের প্রতিবাদে দৈনিক জনকণ্ঠ পত্রিকার রির্পোটার ফিরোজ মান্নানের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার সকালে বান্দরবানের রোয়াংছড়িতে মানববন্ধন করেছে বৌদ্ধ ধর্মালম্বী সাধাররণ মানুষ ও পার্বত্য ভিক্ষু সংঘ।

রোয়াংছড়ি সদর ইউপি চেয়ারম্যানের সঞ্চালনায় পার্বত্য ভিক্ষু পরিষদের সভাপতি ও বোরয়াংছড়ি জেতবন বিহারের অধ্যক্ষ উ পঞঞানন্দ মহাথের সভাপতিত্ত্বে বক্তব্য রাখেন,

উপজেলার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ভাইস মাউসাং মারমা, ভাইস চেয়ারম্যান ক্যসাই নু মারামা, সমাজ সেবক অংশৈমং মারমা, আলেক্ষ্যং ইউপি চেয়ারম্যার বিশ্বনাথ তঞ্চঙ্গ্যাসহ বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষক, ব্যবসায়ী অ্যাসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ।

বক্তরা বলেন, গত ২৪শে এপ্রিল,২০১৭ ইং বহুল প্রচারিত জাতীয় দৈনিক জনকণ্ঠ পত্রিকার সাংবাদিক ফিরোজ মান্নানের করা একটি ফিচার রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়।

প্রকাশিত সংবাদের এক জায়গায় উল্লেখ  করা হয় যে, ৯ দ্বারা তাদের দেবতা সন্ত্রাসী গৌতম বুদ্ধের গুণ, ৬ দ্বারা সন্ত্রাসী গৌতম বুদ্ধের শিক্ষা, ৯ দ্বারা বুদ্ধিষ্ট সংঘের গুণ বুঝিয়েছে। ইহা নাকি বুদ্ধের ত্রিরতœ। ইহা বুদ্ধ ধর্মের চাকার থিম ও বটে।

এতে করে বিশ্বব্যাপী অহিংস বাণী ও বৌদ্ধ ধর্মের প্রচারক গৌতম বুদ্ধকে ‘সন্ত্রাসী’ হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে যা পুরো ধর্মীয় অবমাননার একটি দৃষ্টান্ত রুপ। দেশের আপামর শান্তি প্রিয় বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীর ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানা হয়েছে।

তাছাডাও রাঙ্গামাটির নানিয়াচরের নিরীহ ছাত্র রোমেল চাকমা হত্যাকে ভিন্ন হাতে প্রভাবিত করতে এ জাতীয় সংবাদ।

এ ধরণের কাল্পনিক, বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত সংবাদ দেশের সার্বিক পরিস্থিতিকে যে কোন সময় অস্থিতিশীল করে তুলতে পারে। অবিলম্বে এই সংবাদ প্রত্যাহার এবং দেশের শান্তি  প্রিয় বৌদ্ধদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত প্রদানের জন্য দোষী ব্যক্তিদের যথাযথ শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানায় বক্তরা।